বিপ্লবীদের ঘর বাঁধতে নেই

বিপ্লবীদের ঘর বাঁধতে নেই
————————– রমিত আজাদ

ঠিক এক জায়গাতেই দাঁড়িয়ে থাকা অনেকক্ষণ,
অনেকটা উন্নত ঢাকার নিশ্চল জ্যামের মতন!
ঘর বাঁধা তো স্বপ্ন,
সে নারীর হোক কি পুরুষেরই হোক!
ঘরের জন্যই তো এতকিছু!

যে ঘরে উঁকি দেবে
শীতের সকালের রোদ,
ঢেউ খেলবে উষ্ণ দুপরের বাতাস,
বিকেলটা হবে রাগিণীর সুর!
যে ঘরে জ্বলবে সন্ধ্যাপ্রদীপ
আসন্ন রাত্রীর
রোমান্টিকতার প্রতিশ্রুতি নিয়ে।

যে ঘরে হাসবে শিশু,
খুনশুটি হবে যুগলের!
পড়া তৈরী করবে শিক্ষার্থী!

তবেই না ভরা ঘর!
ভরা সুখ বিহগের বাঁধন-ডেরায়!

বিপ্লবীরাও ঘরের জন্যই বিপ্লব করে,
একটি স্বাধীন-সার্বভৌম ঘর।
একটি স্বচ্ছলতার ঘর।
একটি নিরাপত্তার ঘর।

বিচ্ছিন্ন কোন দ্বীপ নয়,
নয় নিষিদ্ধ পল্লী অথবা নগর!
ঘরের পাশেই ঘর সাজিয়ে,
সবার সাথে মিলেমিশেই থাকা।

শহরের অলি-গলি, টং দোকান, দখলি ফুটপাত,
গাঁয়ের শুকনো পথের উড়ানো ধুলির সাথে
মেশানো শিমুল তুলো,
সুর তোলে ধরণীর ঘরে।

নিভৃতের পথচারী
ছেড়ে স্নেহ-নীড়, বনতলে যায়।
আত্মত্যাগী বীর
প্রস্তুতি নেয় ঘরের স্বপ্ন বাস্তবায়নে।

নিরাপদ ঘর বানাতেই
বিপ্লবীরা বিপ্লব করে,
নীরবে অথবা সরবে।
তদুপরী,
বিপ্লবীদের ঘর বাঁধতে নেই!
—————————————–

রচনাতারিখ: ১৭ই জানুয়ারী, ২০২০
সময়: রাত ২টা ১৪মিনিট

মন্তব্য করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.