রুবাই ২৪৬, ২৪৭, ২৪৮, ২৪৯, ২৫০

রুবাই ২৪৬, ২৪৭, ২৪৮, ২৪৯, ২৫০
———————————- রমিত আজাদ

২৪৬।
দিনের হিসেব শেষ হলে তো রাত্রি নেমে আসে,
রাতটুকু পার করতে হবে, নতুন দিনের আঁশে!
মাঝে মাঝে উজাল দিনেও আঁধার নেমে আসে,
মেঘ সরিয়ে তেমন তিমির ছুঁড়তে হবে নাশে।

২৪৭।
মেঘ বর্ষা গুরু গুরু, তোমার আমার প্রেমের শুরু!
প্রেমের নদী ঈষৎ ভীরু, বন ছেয়ে যায় প্রণয় তরু।
শূন্য বুকে প্রেম জমেনা, বুক ভরা চাই অনুভূতি!
অভিমানের আঁখিজলে জোয়ার ভাটায় প্রেম-প্রতীতি!

২৪৮।
নীল শাড়ি জমকালো, ঝলমলে কারুকাজ!
আঁখি মেলে কুতূহলী ফিরে ফিরে দেখে সাজ!
চলে নদী নীলাচলে সাথে নিয়ে নীল জল,
নীল আকাশে ভাটিয়ালি, মেঘেদের চলাচল!

২৪৯।
ফাল্গুনে যার পেলেনা দেখা, পৌষে কি আর আসবে সে?
বাতায়ন তো রাখোই খোলা, দেখবে কি তায় পথ শেষে?
অভিমানীর মান ভাঙিয়ে, হাতছানি তার নেয় ডেকে?
চমকে উঠে বিষম লাজে, রাখবে কি মুখ আঁচল ঢেকে?

২৫০।
তোর হেরেমের বাঁদি আমি! তোর প্রণয়ের ভিখারিনি!
সুযোগ পেয়ে বাঁধলি শিকল, বন্দী হলাম অভাগিনী!
আমি কবেই ভুলে গেছি, তুই কেন তায় ভুললি না?
অনুতাপ নয় নাই করলি, দুখ্‌ কেন মোর বুঝলি না?

—————————————————————–
রচনাতারিখ: ০৮ই ডিসেম্বর, ২০১৯
সময়: রাত ০২টা ১৯ মিনিট

Rubai 246, 247, 248, 249, 250
—————————-Ramit Azad

মন্তব্য করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.