অনলাইন প্রকাশনা
কখনো কখনো খুব কাঁদতে ইচ্ছা করে

কখনো কখনো খুব কাঁদতে ইচ্ছা করে

কখনো কখনো খুব কাঁদতে ইচ্ছা করে
—————- রমিত আজাদ

কখনো কখনো খুব কাঁদতে ইচ্ছা করে,
মন খুলে কাঁদতে চাই
বুক ফেটে বেরিয়ে আসা, এক সমুদ্র কান্না।
কেন কাঁদবো না বলতো?
আমি তো নিরাবেগ কলের পুতুল নই!

দুঃখগুলো লুকোতে চাইনা,
দুঃখগুলো কান্না হয়ে ঝরুক,
লহু পললের মত এই দেহে আরো আছে জল,
মনের আবেগ আঁখিপথে সেই নীর হয়ে পড়ুক।

তুমি আসবে বলেও যখন আসোনা,
তখন খুব কাঁদতে ইচ্ছে করে,
ফোন ধরবে বলেও যখন ধরোনা,
তখন খুব কাঁদতে ইচ্ছে করে।

তোমার মন খুব খারাপ
এই বুঝে কাঁদতে ইচ্ছে করে,
তুমি প্রতীক্ষায় ছিলেনা,
এই জেনে কাঁদতে ইচ্ছে করে।

বর্ণিল লাল সৈকতের মাঝে,
ছাইরঙা কাঠের সেতুর উপর বসে
হাটুতে মুখ গুজে কাঁদতে ইচ্ছে করে,
সোনারগাঁর মর্মর প্রাসাদের
সদরস্থ পদ্মদিঘির প্রসাধিত ঘাটে বসে
উদ্বাহু উন্মুখ হয়ে কাঁদতে ইচ্ছে করে।

দেশটার করুণ অবস্থা দেখে
চিৎকার করে কাঁদতে ইচ্ছে করে,
ফুলশূণ্য রিক্ত উদ্যান দেখে,
বুক ভেঙে কাঁদতে ইচ্ছে করে।

ভালোবাসার মানুষটা যখন ভুল বোঝে
তখন খুব কাঁদতে ইচ্ছে করে,
রুবিকন নদী পার হতে চেয়েও পারিনি,
এই ভেবে কাঁদতে ইচ্ছে করে।

যা ঘটার তা ঘটে গেছে বলে,
আমি কি আর কাঁদবো না?
কে বলে তা শেষ?
আমি তো তার সন্নিধি
এখনো স্পষ্ট অনুভব করি।
হয়তো আমি একেবারেই কাঁদতাম না,
যদি জানতাম, তুমি হাসছো।
কিন্তু আমি জানি,
তন্দ্রাহীন নিশি তমসায় তুমিও কাঁদো।
তাই আমার,
খুব খুব করে কাঁদতে ইচ্ছে করে,
কারণ,
এর চেয়ে বেশী আমার আর কিছুই করার নাই।

Think of shedding tears at times
—————- Ramit Azad

10:41 hours, 7th December, 2015,
Dhaka
০৭ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ১০:৪৩

(ইতঃপূর্বে প্রকাশিত)

মন্তব্য করুন..

২ thoughts on “কখনো কখনো খুব কাঁদতে ইচ্ছা করে

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.