কুহকী ইন্দ্রজালে আকুতি

কুহকী ইন্দ্রজালে আকুতি
———————- রমিত আজাদ

তুমি তো কখনো-ই আমার প্রেম ছিলে না!
তোমার সাথে তো আমার কোন প্রেমই হয়নি!
চিরকালীন স্বপ্নচারী আমি, তোমাকে নিয়ে কখনো
স্বপ্নালু হয়েছি বলে তো মনে পড়ে না।
কখনোই রুদ্র বিজলী ঝল্‌কে ওঠেনি প্রাণে।
প্রেম হতে হতে হয়নি, অথবা হতে চায়নি; জানিনা।
এভাবে জলতরঙ্গ দোদুল্যমানতার মধ্যেই
কেটে গেলো সময়টা।
তারপর তুমি গেলে তোমার পথে,
আর আমি গেলাম আমার পথে।

কি বলবো একে? বিচ্ছেদ, বিরহ?
এ্যাবসার্ড!
মিলনই যেখানে হয়নি,
সেখানে তো বিরহের প্রশ্নই আসেনা!
ওখানেই তো সব শেষ হওয়ার কথা ছিলো!
তারপরেও কেন শেষ হলো না?
কেন মাথা থেকে তাড়াতে পারলাম না
নিরুত্তাপ কিংবা ইষদুষ্ণ স্মৃতিগুলো?
কেন প্রতি বছরই তোমার জন্মদিন এলেই
ক্যালেন্ডারের পাতার দিকে তাকাই?
মনে পড়ে,
কেমন নিষ্পাপ ঠোট দুটো নাড়িয়ে
বলেছিলে তোমার ‘ডেট অব বার্থ’।
সেই যে মেমোরিতে ঢুকলো, আর ডিলিট হলো না!
ঐ মায়াবী জোড়া অধর যদিও দৃষ্টি কেড়েছিলো,
তবুও যৌবনের তাড়নায়
সেই শবনমে উষ্ণতা খুঁজতে যাইনি কখনো!
তবুও কেন বারবার মনে পড়ে,
সড়ক পার হবার উছিলায় তোমার বাড়িয়ে দেয়া হাত।
ওই তো ছিলো জীবনে পয়লা স্পর্শ, প্রথম পরশ।
এক রাশ কুহকী ইন্দ্রজালে
অপলক পহেলি মুগ্ধতায় প্রথম আকুতি!

অতঃপর কালের ব্যবধানে
আকাশজাল তন্য তন্য করে
খুঁজে বের করলাম তোমাকে।
কেন?
মানসলোকের এতটা উদ্দামতা কোথা হতে এলো?
মহাসাগরের ওপার থেকে,
তুমিই বা কেন পাঠালে ‘কুইক রিপ্লাই’?
লিখেছ, “অবাক হলাম এই দেখে যে,
তুমি এখনো আমাকে মনে করো!”
সত্যিই কি তুমি অবাক হয়েছ???
—————————————————–

রচনাকাল: ১১ই জুন, ২০১৯
সময়: দুপুর ৩টা ২৫ মিনিট

মন্তব্য করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.