জারুল ফুলের দিন

জারুল ফুলের দিন
————————– রমিত আজাদ

“বেশি নিচে নেমে গেছে আপনার হাতটা”,
উবারের সিটে বসে বলেছিলো বাক-টা।
রিমি-টার পাশে বসে মোলায়েম হাতে মোর ,
মৃদু মৃদু বুলিয়েছি সোহাগেতে পিঠ ওর!

ধিরে ধিরে নামিয়েছি পাঁচ আঙুল কারুকাজ;
লোভাতুর হাত খুঁজে নিয়েছিলো মধুখাঁজ।
রসে ভরা কলসীতে জমেছিলো কত মধু,
এ’ হাতের পরশেতে অনুভবে ছিলো শুধু!

নিতম্বে যেন তার দুটি ঢেউ উত্তাল!
হেটে গেলে দোলে ঢেউ, লহরিকা বিহ্বল।
কতদিন হেনেছি যে লোভাতুর দৃষ্টি;
সুনিপুন শিল্পতে অপরূপ সৃষ্টি!

জারুলের দিনগুলি উৎসবে মহিয়ান,
ফোটা ফুল বেগুনীতে ছড়িয়েছে অভিযান।
অবিনাশি ফুলগুলি ডেকে যায় অবিরাম,
এসো আজ অভিসারে ঢালো প্রেম দিনমান।

প্রেমিকারা কথা কয় মুখ বুজে নীরবে,
প্রেমিকেরা বুঝে নেয়, চায় কি সে সরবে।
মুখে তার যেই কথা অন্তরে সেতো নয়,
কুহু ডাক গান নয়, এতো শুধু অভিনয়!

চেনা সুরে দিয়ে যায়, পুরাতন প্রশ্রয়;
বুঝে নাও সে যে চায়, দু’ বাহুর আশ্রয়!
প্রেমিকের হাত চলে শ্রোণিভাজে সশ্র;
প্রেমা বলে শিহরণে “অনুভূতি মিশ্র!”

রিমিটাই বলেছিলো, “প্লিজ প্লিজ হাতটা,
গুটে নিন, ছেড়ে দিন অবলার পিঠটা!”
জারুলের দিন এলে, অভিসারী সুবাসে,
সেই রিমি আনমনে হেলে পড়ে অনাসে!

রিকশার সিটে বসে ইতি উঁতি দেখে সে,
শংকায় বলেছিলো, “কারা যেন দেখেছে!”
“রাখো হাত সংযত, এইবেলা চুপচাপ।
চৌচাকা বাহনেতে করা যাবে ঝুপঝাপ!”

উবারের চাকা ঘোরে বারিধারা, গুলশান;
নিঃদ্বেগে বলে রিমি, “নই আর সাবধান!”
মোর কাধে মাথা রেখে রিমি বলে, “কি যে সুখ!”
প্রাইভেট কারে বসে, জীবনটা অপরূপ!

সোহাগের আবেগেতে তার মাথা মোর কাঁধ,
কেশ থেকে পিঠ হয়ে নিতম্বে বুলে হাত!
ঢেউয়ে দুলে শিহরিত, ভুলে যাই সুর-তাল!

জারুলের দিন আজি, তাই হই উত্তাল!

রচনাতারিখ: ৬ই মে, ২০২২ সাল
রচনাসময়: সন্ধ্যা ৬টা ১০ মিনিট

Jarul Flowers’ Day
———————– Ramit Azad

No description available.

মন্তব্য করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.