থাকো সুখের নীড়ে

থাকো সুখের নীড়ে
——————————- রমিত আজাদ

লক্ষীমণি কোথায় তুমি? সাত সাগরের পারে?
‘ঘরছাড়া এক প্রবাস জীবন’ বেছেই নিলে তারে!
তোমার ব্যাপার বাঁধবে কোথায়, তোমার সুখের ঘর!
ভীনদেশে সব আপন হবে, আপন হবে পর!

পরদেশ হোক, ঘর তো আপন; আপন ঘরের নর।
সন্ধ্যারাগের জ্বালবে প্রদীপ, রাঙিয়ে আপন কর।
দিনের শেষে বরটি যখন আসবে ফিরে ঘরে,
ভুলেই যাবে একঘেয়ে দিন, কাটলো কেমন করে।

মাঝে মাঝে দেখতে মাকে থাকতে যদি দেশে,
এখন শুধু ভার্চুয়ালি দেখছো নেটে বসে।
মা বলছে, “রাঁধলে কি আজ? ঝাল দিয়েছ কেমন?”
তুমি বলছো, “আস্তে-ধীরে নিচ্ছি শিখে, স্বাদ হয়েছে তেমন!”

বাবার কথা পড়ছে মনে, হ্যাপী ফাদারস ডে-তে;
পিতৃস্নেহের জাগলে স্মৃতি, ভিজলে আঁখিপাতে!
বার্তা দিয়ে ছাপলে ছবি, ফেইসবুকেরই বুকে!
বাবার পাশে কন্যা ছিলে স্নেহের পরশ মেখে!

আচ্ছা, তোমার সই-সাথীদের কেমন মনে পড়ে?
তারাও নতুন ঘর বেধেছে, একে একে করে।
শুধু তারা দেশেই আছে, দেশেই ফিরে-ঘুরে,
তুমি থাকো দূর পাহাড়ে, বেড়াও অনেক দূরে!

ভার্সিটি লাইফ, চঞ্চলতা, দারুণ কিছু স্মৃতি;
পড়ার টেবিল, নোটের খাতা, পরীক্ষাকাল ভিতি?
বন্ধুসভায় খুনসুটিতে ক্যান্টিনে তায় মেলা,
চায়ের সাথে চটপটিতে, কাটতো বিকেল বেলা!

মাঝেসাঝে অভিসারে বাজতো মনের বাঁশি,
তারও মনে সুর ছড়াতো, তোমার মধুর হাসি!
হালকা প্রেমের অল্প পরশ, সাবধানতার নীতি,
মন হারালেও, জ্ঞান হারাওনি, পূর্ণ শশীর তিথি!

এখন তুমি অনেক দূরে, ভীনদেশীদের ভীড়ে;
ঘর বেঁধেছ মেঘনা ছেড়ে, মিসিসিপির তীরে।
যেথায়ই বাধো স্বীয় নিবাস, ভালোবাসায় ঘিরে,

শুভার্থী এক বলছে মায়ায়, “থাকো সুখের নীড়ে।”

রচনাতারিখ: ০১লা জুলাই, ২০২১ সাল
রচনাসময়: রাত ০১টা ৫৪ মিনিট

Stay Happy My Love
————————— Ramit Azad

মন্তব্য করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.