Categories
অনলাইন প্রকাশনা

পরিপাটি ঘরেই বিষাদ

পরিপাটি ঘরেই বিষাদ
—————————————- রমিত আজাদ

জানলা গলে আসছে ছুটে, তাজা রোদের দারুণ ধারা;
ফুলদানীটির রঙের ছটা রোদ মেখে আজ আত্মহারা!
চায়ের সেটে মিষ্টি সুবাস, মস্ত টেবিল শোভন খাঁটি
শৌখিন এই খাবার ঘরে, সবকিছু বেশ পরিপাটি!

এই ছবিটা দেখেশুনে ভাবতে পারেন শিল্পরসী,
জানলা পাশে বসে সে যে ঘরের কাজেই মনোবেশী।
সেই শুধু তার সত্য জানে, আনমনা সে কোন ভাবনায়!
অনেক বছর আগের স্মৃতি, ফিরে ফিরে শুধুই কাঁদায়।

সেই কবে যে খেলার মোহে দুজন ছিলো কাছাকাছি,
তাজা রোদের কিরণ মেখে ঘাস গালিচায় লুটোপুটি!
কখনো তার কাঁধে মাথা রেখে হতো বেজায় সুখী,
হাত দুটি তার বক্ষে রেখে, দেখতো তাকে মুখোমুখী।

কানন-ছায়ে কেমন তারা থাকতো চেয়ে আকাশ পানে,
মেঘের গায়ে আল্পনা তার আঁকতো মনের তুলির টানে!
ঝাউগাছে কেউ দেখলে পতগ, খুঁজতো আঁশে পাখির ভিড়,
আঁখির কোনে দেখতো দু’জন, পাখির মতই বাঁধবে নীড়।

তারপরে কোন ঝড়ের তোড়ে, স্বপ্নগুলো ভেসেই গেলো!
এতকালের গড়া খোয়াব, এক নিমিষেই বিদায় নিলো।
ধোঁয়ার মতই মিলিয়ে গেলো, নয়ন-পাতার সব অভিলাষ
শ্রান্ত হলো প্রেমিক মিথুন, ভ্রান্ত হলো আশা-বিলাস!

মিলনমালা গাঁথলো না কেউ, সুতোয় ফুলে বেঁধে বেঁধে;
পরিপাটি ঘরেই কাটে, নিঝুম রাতি জেগে জেগে!
খুইয়েছে সব সেই বিকেলে, অস্তাচলের ধুলির সাথে!

এরপরে সব বিকেলগুলোয় বুক ফেটে যায় আর্তনাদে!

রচনাতারিখ: ২৪শে এপ্রিল, ২০২১ সাল
রচনাসময়: রাত ০২টা ১৪ মিনিট

Unhappiness in a Tidy House
—————————— Ramit Azad

May be an illustration of indoor

মন্তব্য করুন..

By ডঃ রমিত আজাদ

মুক্তিযুদ্ধের সেই উত্তাল দিনুলোতে, অজস্র তরুণ কি অসম সাহসিকতা নিয়ে দেশমাতৃকাকে রক্ষা করেছিল!
ব্যাটা নিয়াজী বলেছিলো, “বাঙালী মার্শাল রেস না”। ২৫শে মার্চের পরপরই যখন লক্ষ লক্ষ তরুণ লুঙ্গি পরে হাটু কাদায় দাঁড়িয়ে অস্র হাতে প্রশিক্ষন নিতে শুরু করল, বাঙালীর এই রাতারাতি মার্শাল রেস হয়ে যাওয়া দেখে পাকিস্তানি শাসক চক্র রিতিমত আহাম্মক বনে যায়।
সেই অসম সাহস সেই পর্বত প্রমাণ মনোবল আবার ফিরে আসুক বাংলাদেশের তরুণদের মাঝে। দূর হোক দুর্নীতি, হতাশা, গ্লানি, অমঙ্গল। আর একবার জয় হোক বাংলার অপরাজেয় তারুণ্যের।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.