প্রিয়ার হাতে কদম ফুল (Kadam Flower in My Lover’s Hand )

প্রিয়ার হাতে কদম ফুল
————————— রমিত আজাদ

এলো বর্ষা এলো, বর্ষা এলো, বর্ষা এলো রে!
সারা দেশের শুষ্ক জমিন ভিজিয়ে দিলো রে!
বৃষ্টি নামে, বৃষ্টি নামে, বৃষ্টি নামে রে!
ঝিলের জলে ঢলের খেলা, বিষম চলে রে।

মেঘ ছেয়ে যায় নীল আকাশে, ধুসর চাদর ঢাকা;
অম্বরে তাই ঝলকে ওঠে, বজ্র-মাণিক চাকা!
বৃষ্টি কি সে কান্না ঝরা, দুঃখ ভরা মেঘের?
গগনটাতে লুকিয়ে থাকা বিমর্ষতা রাগের?

যতই থাকুক দুঃখ-বিলাস সুনীল আকাশ জুড়ে,
আশমানে থাক অভিমানী হাজার যোজন দূরে!
এত কিছুর মাঝেও হাসে অপূর্ব এক ফুল,
শ্রাবণ ধারায় ফুটতে যাহার হয় না কভু ভুল!

বিশাল কায়া বৃক্ষ শাখে বর্তুলাকার পুষ্প,
হাসির ছটায় উদ্ভাসিত, ভুলিয়ে দিতে দুঃখ!
অমন ফুলের রূপের মায়ায়, বর্ষা ঋতু ছায়;
কদম নামের ঐ কুসুমের, কোন সে যাদু হায়!

গাঁয়ের বাঁকে, চলার পথে, কদম তরূর বন;
বাদল দিনের কদম ফুলে উঠলো ভরে মন।
গুচ্ছ কদম মুঠোয় ভরে ফুলের তোড়া বেঁধে,
প্রিয়ার হাতে দেবই তুলে বর্ষা রাগে সেধে!

শিশুর হাতের বর্ষা-রাণী, কবির মনের ভাব,
বিন্দু জলে, সিক্ত কায়ায় কদম ফুলের ছাপ।
ঘোর বরিষেও সুবাস ভাসে নীপ বনের বায়,
শ্যামল শোভায় মেঘ-বীথিকা মঞ্জরিতে ছায়!

চাইনা গোলাপ, চাইনা পারুল, চাইনা নয়নতারা,
বৃষ্টি সুধায় কদম ফুলই স্নিগ্ধ নয়নকাড়া!
শুধায় যদি আমার প্রিয়া, “কোন সে পাগলপারা?”

বলবো তাকে “কদম ছাড়া, হয়না প্রেমের ধারা!”

রচনাতারিখ: ১৯শে জুলাই, ২০২১ সাল
রচনাসময়: রাত ১০টা ৫৪ মিনিট

Kadam Flower in My Lover’s Hand
———————- Ramit Azad

(এদেশে বর্ষা আসেনা, আসে শীত।
এদেশে বৃষ্টি ঝরে না, নামে তুষার।
এদেশে কদম গাছ নেই, তাই কদম ফুলও ফোটে না!
তাই এদেশে প্রিয়ার হাতে কদম ফুল তুলে দিতে পারিনি!)

মন্তব্য করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.