বসন্ত দিনের দুঃখ, তোমার জন্মদিনে

বসন্ত দিনের দুঃখ, তোমার জন্মদিনে
—————– ডঃ রমিত আজাদ

পাতায় পাতায় রঙিন দিনের স্বপ্ন যখন আঁকি
মিষ্টি মাখা মধুর সুরে কোকিল তখন ডাকি ।
নবীন ফুলের গন্ধ নিয়ে কেমন মাতামাতি!
শিশির-ঝরা কলমীফুলে হাসির রাশি রাশি,
বাতাস যখন আসলো ধেয়ে বিষম পাশাপাশি।

উতলা মন বুঝতে পারে, কোন সে নদীর পারে,
ফুল ফোটা ডাল পরছে নুয়ে শ্যামল বনের ধারে।
শিমুল পলাশ উঠলো হেসে অরুন্ধতীর বায়,
কুহু কেকার রাগ অনুরাগ বসুমতীর ছায়!

আসলো হাসি, আসলো ফাগুন,
ঝলকে ওঠে, রোদের আগুন।
তীব্র শীতের দুঃখ বিলীন,
বসন্ত দিন, অন্য রঙিন!
এই সুযোগেই আসলো ফিরে
তোমার শুভ জন্মের দিন। ।

হ্যাঁ, আজ ১৩ই ফেব্রুয়ারী তোমার জন্মদিন।
আমরা বিয়ে করতে চেয়েছিলাম
পহেলা বসন্তদিনে,মনে পড়ে?

ঘুরেফিরে প্রতি বছরই বসন্ত আসে,
শুধুই বনে, আমাদের মনে নয়!

প্রিয়তমা!
কখনো কখনো মনে হয়,
ভুলে যাই তোমার জন্মদিন,
কি হবে আর মনে রেখে?
কিন্তু ভোলা হয়না,
ভুলে যেতে দেবেনা বলেই বোধহয়,
মেয়েরা বাসন্তি রঙ শাড়ী পড়ে,
হালকা প্রসাধনে মুখে আনে কোমল স্নিগ্ধতা,
ফাগুনের আগুন রঙে জ্বলে বসন্তের অনল,
উৎসবের মাতামাতিতে, মৃদু হাসির ঝিলিক,
তরুণীদের ঠোট ছুঁয়ে ছড়িয়ে যায়
অজস্র ফুলের পাঁপড়িতে,
ওরা বসন্ত বরণ করে তোমার জন্মদিনে।

আর আমি?
চোখের ভাষায় মনের আকাশ দেখি,
নিশব্দে কৃষ্ণচূড়া ঝরে,
বাতাসে দোল খায় বাগান বিলাস,
আমার জীবন আর সেই বর্ণালী নয়,
গানের খাতা মলিন হয়েছে সেই কবে!
ভালোবাসা কেমন সর্বনাশা!
আজ এমন বসন্তে
তুমি পাশে থাকলে,
আমি আরোও উদাস হতাম।

না তুমি পাশে নেই,
তাই বসন্ত উৎসব নয়,
কেবলই বসন্ত দিনের দুঃখ
খুঁজে পাই তোমার জন্মদিনে
শুভ জন্মদিন তোমাকে!

আমার কথা একদম ভেবোনা কিন্তু,
এমন বসন্ত দিনে,
কি হবে অপ্রয়োজনে মনটা খারাপ করে?
নিঠুর ইরেজার দিয়ে মুছে ফেলো স্মৃতি,
অতীত নয়, বর্তমানই সব,
আনন্দে উদ্ভাসিত করে হৃদয়,
দীপ্তিভরা আঁখির কোলে তৃপ্তি নিয়ে,
তুমি বসন্ত বরণ করে নাও আপন সুখে।


প্রথম রচনাতারিখ: ১৩ই ফেব্রুয়ারী, ২০১৫ সাল
দ্বিতীয় রচনাতারিখ (নতুন করে লেখা): ১৪ই ফেব্রুয়ারী, ২০২২ সাল
সময়: দুপুর ১২টা ১৪ মিনিট

Gloomy Spring Day, on Your Birthday
————————— Ramit Azad

মন্তব্য করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.