রঙ মাখা মুখ

রঙ মাখা মুখ
——————- রমিত আজাদ

নেতা নই অভিনেতা, হাসি, খেলি, নাচি-গাই,
পেশাতেই আছে লেখা, মিছে কথা বলে যাই।
আমরা যা কথা কই, সেগুলোতে দেয় লিখি,
আমাদের হাসিগুলো খাঁটি নয়, জালিয়াতি!

মঞ্চ কি পর্দায় তোমরা যা দেখে যাও,
পর্দার আড়ালে কি তেমনিটা পেতে চাও?
জেনে নিও পর্দার এপাশে ও ওপাশে,
ফারাকের শেষ নাই, নাটুয়ার হুতাশে।

রঙ মাখা মুখগুলো বড় বেশি মনোরম,
মুখোশের আড়ালেতে কুৎসিত ইহধাম।
এই পিঠে চাঁদটার বড় বেশি জেল্লা,
ওপাশটা আলোহীন আঁধারের কেল্লা।

তবু কেন তোমরা যে রঙ মাখা মুখ চাও!
রঙ ধুয়ে মুছে গেলে হতাশায় তরপাও!
পর্দায় দেখো সুখ, ডুবে থাকো বাসনায়,
বাস্তবে সুখ মেলে, যত ডুবো সাধনায়?

মিথ্যের বেসাতিতে মঞ্চটা ভরপুর,
মঞ্চটা ছেড়ে এলে উবে যায় কর্পুর।
সুর ছেড়ে গান গাওয়া কন্ঠটা ঝরঝর,
খুঁজে দেখো তার ঘরে কান্নাটা জর্জর!

ক্যামেরার সমুখেতে এ্যাকশন এ্যাকশন,
নিভে গেলে লাইটগুলো, হতাশার বর্ষণ।
সিনেমার কাহিনীটা নিয়ে কত সংশয়!
ভালো করে ভেবে দেখো, জীবনটাই অভিনয়!

আমরা তো পেট দায়ে অভিনয় করে যাই,
সুধা ঢালা সংলাপে মঞ্চটা মাতে তাই।
আর যারা অভিনেতা মঞ্চের বাইরে?
মিথ্যের বেসাতিতে সমাজটা খায়রে?

সামাজিক অভিনেতা সংলাপে পটু বেশ!
দ্বিধাহীন বলে যায় জালিয়াতি সন্দেশ।
দুশমনী মন নিয়ে, দোস্ত সেঁজে যায় বাড়ী,
অভিনয় ফাঁদে ফেলে কড়ি তোলে কাড়ি কাড়ি!

এইরূপে সমাজটা অভিনয়ে ছড়াছড়ি,
দিবসে যে সাধু বেশ, সেই ঘাতী বিভাবরী।
রাতকানা দেখেনাতো নিশি ভরা অপরাধ,
চোখ-কান খোলা যার, সেই হবে উন্মাদ।

আমরা তো হতভাগা পেশাদারী নাটুয়া,
চান্স পেলে চেপে ধরো, খুলে দেখো বটুয়া।
অভিনয়ে ছাওয়া যেই সমাজটা ভরপুর,
সেই ছুঁড়ে ফাঁকা বুলি, কত বড় নিষ্ঠুর!

রঙ মেখে সঙ সাঁজি, পেশাটাই অভিনয়,
লিখে দেয়া কথা বলি, নিজস্ব প্রতিভায়।
পেট দায়ে পর্দাতে নাচি গাই স্বেচ্ছায়,

নির্ভয়ে বলে যাবো, এ তো শুধু অভিনয়!

রচনাতারিখ: ১১ই আগস্ট, ২০২১
রচনাসময়: রাত ০২টা ৩৮ মিনিট

Light, Camera, Action
————— Ramit Azad

মন্তব্য করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.