রুবাই ১৪৬, ১৪৭, ১৪৮, ১৪৯, ১৫০

রুবাই ১৪৬, ১৪৭, ১৪৮, ১৪৯, ১৫০
———————————- রমিত আজাদ

১৪৬।
কোন্‌ নদী? কোন্‌ মেয়ে? কোন্‌ বনে জোছনা?
কার বেগ কার আবেগে মিলিয়েছে মোহনা!
ওগো নদী বলে যাও, কূলে তায় কোন মেয়ে?
কার পদ ছোঁয়া পেয়ে, জলঢেউ আসে ধেয়ে?

১৪৭।
কালবোশেখী টালমাটালে, রুদ্র হাওয়ায় ঝড় তোল!
বজ্র ছুঁড়ে তাল-বেতালে, তীব্র ধারায় তেজ ঢালো।
বহ্নিশিখা দাও ছড়িয়ে, মরা স্রোতে বান ডাকো।
ঘুণ ধরা সব তরু-বীথি, উপড়ে ফেলে হাঁক হাকো।

১৪৮।
জেগেই যারা ঘুমিয়ে থাকে, ঘুম কি তাদের আছে?
উদ্বেগ তার মাথার ব্যারাম, যম যে কখন আসে!
দুশ্চিন্তায় ছটফটানি, পালঙ্কে সুখ নাই,
দাওয়াত দিলেও নিদ্রা পালায়, ঘুমের খবর নাই!

১৪৯।
স্বপ্ন তোমায় স্বপ্নে দেখি, বাসর সাজাই নীড়ে,
এই নগরীর পথেই খুঁজি, লক্ষ জনের ভীড়ে।
লক্ষ তারার মাঝে যখন একটি চন্দ্র হাসে,
রিক্ত বুকেই জাগছে আশা, স্বপ্ন যদি আসে!

১৫০।
প্রাচীরগাত্রে ফুটিলো পুষ্প কুল পরিচয়হীন,
ইটেরপাত্রে উঠিলো শোভা মাত্রা সীমাহীন।
চলার পথে যেই দেখেছে ধন্য ধন্য করে,
পথের শোভা সে যে প্রসূন বন্ধ্যা এ’ নগরে।

—————————————————
রচনাতারিখ: ২৬শে অক্টোবর, ২০১৯
সময়: রাত ১১টা ১৯ মিনিট

মন্তব্য করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.