রুবাই ১৫৬, ১৫৭, ১৫৮, ১৫৯, ১৬০

রুবাই ১৫৬, ১৫৭, ১৫৮, ১৫৯, ১৬০
———————————- রমিত আজাদ

১৫৬।
শরতের মধু রঙে, যমুনার সুধা ঢঙে,
নদীতটে মেয়েটি, ধীরে বহে নদীটি,
ফিরে ফিরে চায় নদী, তীরে তার কোন মেয়ে?
কার রূপ সুধা নিয়ে, প্রবাহিনী যায় ধেয়ে?

১৫৭।
শীত রাতে নাড়ে কড়া, স্মৃতিদের কিছু ঝরা,
শৈত্যের কুজ্ঝটি, বিড়ালের গুটিশুটি,
মনোলগ পরিতাপ, মগজের সংলাপ,
কল্পিত আবাহন, বলি তারে সাইক্লোন!

১৫৮।
লুন্ঠনে অঙ্গনে, জ্বলন্ত চুম্বনে,
পুড়ে যায় ওষ্ঠ, করে পথভ্রষ্ট,
দংশনে দংশনে, আশীবিষ রঙ্গনে,
এই বিষই অমৃত, ফুলশীষ প্রাঙ্গনে !

১৫৯।
কথা নাই, ভাষা নাই, নাই কোন শব্দ!
কথা যদি বলে ফেলো, হয়ে যাবে জব্দ!
তারচেয়ে চুপচাপ সব কথা শুনে যাও,
এলোমেলো যাই বলে, হাততালি দিয়ে যাও!

১৬০।
প্রভাত পাখীর কন্ঠে শুনি, মন ভাঙানো গান,
দক্ষিণ হাওয়ায় বার্তা আনে, পূর্ব রাগের প্রাণ!
কে জ্বালাবে অগ্নিপ্রদীপ? কে ছড়াবে আলো?
শোভা যাত্রার অগ্রপথে, কে দাঁড়াবে বলো?

—————————————————————
রচনাতারিখ: ২৮শে অক্টোবর, ২০১৯
সময়:দুপুর ১টা ১৯মিনিট

মন্তব্য করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.