রুবাই ৩০৬, ৩০৭, ৩০৮, ৩০৯, ৩১০

রুবাই ৩০৬, ৩০৭, ৩০৮, ৩০৯, ৩১০
—————————————– রমিত আজাদ

৩০৬।
যাকে নিয়ে লিখে যাই, কবিতা সে বোঝেনা!
নিরালোক চেয়ে রয়, এক লাইন পড়েনা!
এরপর কবিতার রস কিছু থাকে কি?
তদুপরি তার রূপ লেখনীতে ফোটে কি?

৩০৭।
সেলফি-তে ফুটে ওঠে রূপসীর রূপসুধা!
হাসিখুশী মুখে তোলা ডিজিটাল ফটোবিতা!
সুখী সুখী ছবিগুলো হরষের রঙে ছাওয়া,
ফেসবুকে ফোটা ছবি ইথারের ঢঙে পাওয়া!

৩০৮।
এই বুকে তার কত্ত জ্বালা, তপ্তসুধা পান করে যে!
জানলে আগে সুধার-পাতে ওষ্ঠখানি রাখতো না সে!
অষ্টপ্রহর জহর জ্বালায়, বুক জ্বলে তার দগ্ধ চিতায়,
বহ্নিশিখা উৎকলিকায়, ফেরার কোন পথ সে না পায়!

৩০৯।
টিনা যদি নাম তার, টুনটুনি পাখি কই?
মুনমুনে মূনিয়ার গান গাওয়া শাখী কই?
ঘুলঘুলে বুলবুলি বাগদাদী সুর সাধে,
চন্দনা বন্দনে বিভাবরী রাগ বাঁধে!

৩১০
কোন সে শাওন আসলে পরে বাঁধবে খোঁপা মেঘলা কেশে?
মুক্তোচুলে দুলছে ভুলে, ফুল তাহাতে থাকবে কিসে?
একটা বাগান এই ভরেছি হরেক রঙের ফুলে ছাওয়া,
সবগুলো ফুল তোমার খোঁপায় রাখবো ধরে, মনের চাওয়া!

—————————————————————
রচনাতারিখ: ০৮ই ফেব্রুয়ারী, ২০২০ সাল
সময়: সন্ধ্যা ০৭ টা ২২ মিনিট

Rubai 306, 307, 308, 309, 310
———————————- Ramit Azad

মন্তব্য করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.