রুবাই ৪১১-৪২০

৪১১।

মেঘের জলে মেঘ নেয়েছে, গগন ভরা জল অণু;

মেঘ কেটে যেই রোদ উঠেছে, আকাশ জোড়া রামধনু।

কি দেব আজ তোমায় ভাবি! রংধনু না রৌদ্র প্রখর?

রোদের সাথে রঙ মিশিয়ে, সাজিয়ে দেব তোমার প্রহর।

—————————- রমিত আজাদ

১৭ই আগস্ট, ২০২০ সাল

৪১২।

সোনা রোদে সোনার মেয়ে দোল খেয়ে যায় বেশ,

শরৎ আকাশ রোদ ঢেলেছে, শ্রাবণ ধারা শেষ!

কাশফুলে আজ ঢেউ জেগেছে, বাতাস গেছে ছুঁয়ে;

সোনার মেয়ের হাসির ঝলক আকাশ দেখে নুয়ে।

——————————– রমিত আজাদ

১৮ই আগস্ট, ২০২০ সাল

৪১৩।

আকাশ তোমার রক্তক্ষরণ বৃষ্টি হয়ে ঝরে,

মেঘগুলো সব জমাট ব্যাথা, সাদা-কালোয় ওড়ে!

দরজা গলে বৃষ্টি ঢোকে, জানলা গলে মেঘ,

সূর্য বলে তোরা সবাই, আকাশ হতে শেখ্‌!

—————————- রমিত আজাদ

২৪শে আগস্ট, ২০২০

৪১৪।

বৃষ্টি পড়ে, বৃষ্টি ঝরে,

টুং টাং টুং হৃদয় তারে।

বৃষ্টি পড়ে, বৃষ্টি সাজে,

ভালোবাসার নূপুর বাজে!

বৃষ্টি বাজে টিনের ছাদে,

বৃষ্টি রূপে আঁকাশ কাঁদে।

কাঁদছে আকাশ কেঁদেই চলুক,

মনের কথা, ভাষায় বলুক।

বৃষ্টি কি এক প্রেমের সুধা?

সুনীল মেটায় জমির ক্ষুধা?

বৃষ্টি নামে চোখের পাতায়,

কার বেদনা বন্যা ভাসায়?

——————–রমিত আজাদ

০১লা সেপ্টেম্বর, ২০২০ সাল

৪১৫।

টলমলে জল ছলছলিয়ে নদীর জলে কলকলায়,

হৃদয় ভেঙে কোন সে পাষাণ, হিম আলয়ে ঝলমলায়?

জল জোছনার কাব্য কি আজ, ছন্দবিহীন গদ্য হলো?

সুখের আঁশে দীর্ঘশ্বাস আজ, সুর হারিয়ে ম্লান হলো!

—————————————— রমিত আজাদ

০৯ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ সাল

XXXXXXXXXXXXXXXXXXXXXXXXXXXXXXXXX

৪১৬।

টকটক লাল, শুভ্র সাজে, কোন সে ভাষা আঁখির পাতায়?

কোন মানসী উঠলো হেসে, লুকিয়ে ব্যাথা আকুলতায়?

হিমেল হাওয়ার এমন সাঁঝে, ঝাপসা হলো শ্যাম কুয়াশা,

দিনান্তে তাই হিমান্তিকায়, অচীন আঁশে বাড়েই তৃষা!

——————————————- রমিত আজাদ

              ১৮ই, জানুয়ারী, ২০২১ সাল

৪১৭।

মাঘের শীতে বাঘ পালালেও, পালায়নি সে রুদ্র পাখি;

লোকান্তরের তেপান্তরে, দৃষ্টি হানে শুভ্র আঁখি।

হয়তো তখন অকারণেই, দীপ জ্বেলেছে সন্ধ্যাতারা,

একাকিনীর প্রতীক্ষাতেই নিরুদ্দেশে বইছে ধারা!

——————————————- রমিত আজাদ

              ১৮ই, জানুয়ারী, ২০২১ সাল

৪১৮।

গাছের পাতা খোপায় গুঁজে কার পথ চায় সুন্দরী?

কার চোখে সে চোখ রেখেছে? কোন কথা কয় মন ভরি?

তার চারিধার প্রাণ পেল আজ, আলোর ছটায় ফুল্লরী!

নীরব ভাষায় বলছে হৃদয়, হাজার কথার ফুলঝুড়ি!

———————————- রমিত আজাদ

রচনাতারিখ: ০৫ই ফেব্রুয়ারী, ২০২১ সাল

রচনাসময়: দুপুর ০২টা ০৮ মিনিট (বাংলাদেশ)

৪১৯।

বৃষ্টি যখন মিষ্টি তালে, ঝরছে নারীর দৃষ্টিপথে,

সেই কুহেলী ছন্দজালে, মন কেড়েছে দৃশ্যপটে।

পার্থিব তার দেহের সুধা, ঐন্দ্রজালিক বিশ্বপথে,

অবাধ্য সেই মেঘবেলাতে, চোখ রাখি তার নয়নপাতে।

————————————- রমিত আজাদ

১২ই মার্চ, ২০২১ সাল

৪২০।

নূপুর পায়ে নূপুর যে যায় রূপসা নদীর তীরে,

রূপের ছটায় ঢেউ নেচে যায় পানকৌড়ির ভীড়ে।

জলপরীরা আড় চোখে চায়, কোন রূপসী এলো?

কাশবনে তার মেঘ কালো চুল উড়ছে এলোমেলো!

মন্তব্য করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.