অনলাইন প্রকাশনা
রুবাই ৪২১ – ৪২৫

রুবাই ৪২১ – ৪২৫

রুবাই ৪২১ – ৪২৫
————————————- রমিত আজাদ

৪২১।
প্রণয়লীলায় মত্ত আঁখি, সুখ দিয়েছে অপার্থিব,
নগ্নতা তার ধুপছায়া রাগ, মত্ততা তার নিসর্গিক!
জলকেলিতে সিক্ত আঁখি তৃষ্ণাতুরা মন কামিনী,
রতিরাগে ভাসতো হৃদি, নেশাতুরা দিন যামিনী।

৪২২।
বক্র অধর হাসির রেখায় উঠলো ফুটে চরম সুখ,
চন্দ্রিমা রূপ তপ্ত ঠোঁটে তীব্ররতির দীপ্তি মুখ।
প্রণয়লীলায় শান্তি অপার, ক্লান্তি যেথা ভিত্তিহীন,
শ্রান্তিবিহীন নিটোল নিশি, নিদ্রা সেথা অর্থহীন।

৪২৩।
গন্ধরাজ আর শিউলীমালায় সুরভিত হাসনা হেনা,
বকুল ফুলের মাদকতায় এ রাত হবে গোলাপ চেনা।
গোলাপ যখন পাপড়ি মেলে করলো নিশি সুবাসময়,
পালঙ্ক তায় মালঞ্চ হয়, প্রণয় সুধায় ফুলমলয়!

৪২৪।
এই বিজনে কুহু কূজন, আমরা দুজন নেশায় চুর,
নিসর্গ তার দ্বার খুলেছে, দুইটি হৃদয় তৃষ্ণাতুর!
সেই পুরাতন খেলছি খেলা, হংসমিথুন নিমগ্ন,
মৈথুনে সুখ মত্ত শরীর, সোহাগ রতির এ লগ্ন!

৪২৫।
নূপুর টুপুর দুপুর বেলায় জলছবিতে তুলছে সুর,
সন্ধ্যারাগে অরুন্ধতী চলছে পথে অনেক দূর।
শর্বরীতে নিহারিকার জ্বলছে আলো নিরন্তর,

হর নিশিদিন চন্দ্র-রবি দেখছে সবই অবান্তর।

রচনাতারিখ: ১৯শে মে, ২০২১ সাল।
রচনাসময়: দুপুর ০১টা ৪৫ মিনিট

মন্তব্য করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.