রুবাই ৫৪১-৫৪৫ (Rubai Ramit 541 – 545)

রুবাই ৫৪১-৫৪৫
—————————– রমিত আজাদ

৫৪১।
কন্যা তোমার নাম কি বলো? কোন দেশেতে বাস?
ফুলের মালা জড়িয়ে মাথায়, কেশে সোনার রাশ।
সবুজ জামায় কালোর ফোটা, আটপৌরে সাজ;
তবু রূপের নেই কমতি, তুমিই তোমার তাজ!

—————————— রমিত আজাদ
০৩রা নভেম্বর, ২০২২ সাল

৫৪২।
শহর সাজে বিজলি আলোয়, ঝলমলে তার রূপ;
যানবাহনের প্রলয় আওয়াজ, রাতের বিহগ চুপ।
তুমি সাজো তোমার রূপেই, বাধ মানেনা সাধ;
বিজলি-আলো তোমার মুখেই, হার মেনেছে চাঁদ!

—————————— রমিত আজাদ
০৩রা নভেম্বর, ২০২২ সাল

৫৪৩।
আমার প্রিয়ার অসুখ ছিলো, শুকিয়ে ছিলো মুখ:
সে মুখ দেখে আমিই কাঁদি, কোথায় রাখি দুখ?!
সোনার মুখে কালোর ছায়া, নয়ন যে মলিন;
তাই দেখে মোর বুক ভেসেছে, মেঘলা যেন দিন!

৫৪৪।
যেই মুখে ছিলো মধু, সেই মুখে ছায়া!
কেন সোনা, কি হয়েছে? কে ছিনিলো মায়া?
দাও তব হাতখানি, ছুঁই অনুরণে;
ভরে দেব দেহখানি, ঘন শিহরণে!

৫৪৫।
নাম ছিলো তার বাবার দেয়া, একটুখানি নাম;
আমি বলি, “এ নাম নিলে, হবে যে বদনাম!
সবাই তখন জেনেই যাবে, তুমিই আমার প্রিয়া”

“নতুন নামে ডাকো তবে”, বললো আমার হিয়া।”

রচনাতারিখ: ০৩রা নভেম্বর, ২০২২
রচনাসময়: দুপুর ০৩টা ১০ মিনিট

Rubai 541 – 545
———————– Ramit Azad

মন্তব্য করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.