রূপসী চন্দ্রিমার প্রলোভন

রূপসী চন্দ্রিমার প্রলোভন
————— রমিত আজাদ

গৃহীরা গৃহহীন হতে পারে না,
যদিও স্নিগ্ধ জোৎস্না
প্রলুদ্ধ করে প্রতিটি পূর্ণিমায়!
তার সবটুকু রঙ আলো ছুঁড়ে দিয়ে
মেতে ওঠে হোলি খেলায়!
ডাকে, আয়, আয়, আয়।

ঐ চন্দন মেখে গবাক্ষে এসে দাঁড়ায়
আনচান বৈরাগী মন সংসারী।
বাতায়নের ওপাশে
রূপসী চন্দ্রিমার প্রলোভন,
আর এপাশে ঘুমন্ত বধু ও শিশু!

প্রতিটি পূর্ণিমায় যতবারই উন্মাদ হয়
বৈরাগী মন,
সংসারের মায়া ও কর্তব্য ততবারই
তাকে গৃহবন্দী করে!

আহা গবাক্ষের গরাদ!
ওপাশে নির্মোহ বৈরাগ্যের প্রলোভন,
এপাশে মোহিনী গৃহের অনুশাসন!
শিরায় রক্তের স্রোত
দোদুল্যমান, দোদুল্যমান, দোদুল্যমান!

———————-
রচনাতারিখ: ১৭ই আগস্ট, ২০১৯
সময়: রাত ১টা ৩০ মিনিট

মন্তব্য করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.