শহরটা কি এতই বড়?

শহরটা কি এতই বড়?
——————————- রমিত আজাদ

শহরটা কি এতই বড়? সাগর সম, বিশালতার অকূল পাথার?
এত্তগুলো বছর গেলো, রাহুর গ্রাসে সূর্য গেলো কয়েকটিবার,
ছোট্ট শিশু উঠলো বেড়ে, নতুন করে, উন্মেষিত প্রজন্মটার!
এক শহরে থেকেও কভু হয়নি দেখা একটিবারও তোমার-আমার!

জানি তুমি পাশ করেছ, লেখাপড়া শেষ করেছ,
প্রকৌশলীর সনদ নিয়ে আজ গ্রাজুয়েট;
চাকরী নিয়ে কর্মজীবী, অফিস করো ঘড়ি ধরে নিয়মিত।
এই শহরেই দিব্যি আছো, ওয়েল-এমপ্লয়েড।

প্রাণোচ্ছাসে উদ্বেলিত তুমি ছিলে সদ্য ফোটা গোলাপ প্রসূন।
আমি তখন মাঝবয়সী স্বার্থবাদী, নিজ ক্যারিয়ার করছি সৃজন।
জানি তুমি অধীর ছিলে ভালোবাসায়, প্রণয়-সুখের অস্থিরতায়;
আমার কাছে তুমি ছিলে প্রমোদসাথী, ঐটুকুনই, আর কিছু নয়!

মোহের বশে এমন জনে বাসলে ভালো, যে জন ছিলো প্রেম-বিমুখী,
স্বার্থপরে প্রেম বোঝেনা, কাম বোঝে, আর হেলায় ঠেলে পূণ্য তিথি।
শরাবী চায় নতুন নেশা, নয় বঁধুয়া; অনুরাগের বুঝবে সে কি?
লালসাতে মগ্ন যেজন, পাপীই সেজন, পূণ্যস্নানে তার অরুচি!

সেই যে হলো ছাড়াছাড়ি, হারিয়ে গেলাম ক্রমান্বয়ে, সম্ভবত তাড়াতাড়িই;
তাও সে ভালো, যাক যা হলো, নীরব ধারায়, হয়নি কোন বাড়াবাড়িই!
সেই থেকে আর হয়নি দেখা, হয়নি লেখা পত্র কোন, হয়নি কথা টেলিফোনেও;
যদিওবা মোবাইলটাতে আজও আছে, তোমার টাচে লিখে দেয়া সংখ্যাগুলোও!

জানি তোমার নতুন ভূবন, পরিক্রমার কালের চাকায় ঘর বেধেছ পেয়েই সুজন;
আমি ছিলাম শুধুই কূজন, হংস মিথুন থেকেও মোরা, দ্বিধান্বিত ছিলাম দু’জন,
প্রতিক্ষাতে নাই বা ছিলাম, আজ এতকাল পরে তোমায়, পড়ছে মনে নতুন মায়ায়,

কোন কূহকী জাদুর ছোঁয়ায়, নতুন করে কাঁদছে হৃদয়, মন চাইছে দেখতে তোমায়।

রচনাতারিখ: ২৬শে এপ্রিল, ২০২১ সাল
রচনাসময়: রাত ০৩টা ০১ মিনিট

Is the City So Big?
———————— Ramit Azad

মন্তব্য করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.