Categories
ইজি পাবলিকেশনস ইপুস্তকসমূহ(eBooks) জীবনী ও স্মৃতিকথা

ড. রমিত আজাদ এর প্রকাশিত ইপুস্তক “১৯৮১ সালের ৩০শে মে, একটি নক্ষত্রের ঝরে পড়া, শোকে মূহ্যমান জাতি”

আমরা অত্যন্ত আনন্দের সঙ্গে জানাচ্ছি যে বিশিষ্ট লেখক ড. রমিত আজাদ এর একটি ইপস্তক আমরা প্রকাশ করেছি । ইপস্তকটির নাম ”১৯৮১ সালের ৩০শে মে, একটি নক্ষত্রের ঝরে পড়া, শোকে মূহ্যমান জাতি” ” ।

এ ইপুস্তকটি ইজি পাবলিকেশনসে প্রকাশিত লেখকের ২য় ইপুস্তক ।

ইপুস্তক(eBook)টি সরাসরি ডাউনলোড করুন আর উপভোগ করুন বাংলাদেশের একজন সফল রাস্ট্র নায়কের সত্য ইতিহাস ।

ডাউনলোড লিংকঃ http://allfreebd.com/dr-ramit-azad-ebooks/

ইজি পাবলিকেশনসে সকল ধরনের ইপুস্তক প্রকাশ ও ডাউনলোড করুন বিনামূল্যে ।

বিস্তারিতঃ

ইপুস্তক প্রকাশ সম্পর্কে জানতে ক্লিক করুন ।

পুস্তক প্রকাশ সম্পর্কে জানতে ক্লিক করুন ।

 

–ইজি পাবলিকেশনস্ প্রকাশক ।

Categories
ইজি পাবলিকেশনস ইপুস্তকসমূহ(eBooks) উপন্যাস

ড. রমিত আজাদ এর প্রকাশিত ইপুস্তক ‘বিষন্ন বিরিওজা’

আমরা অত্যন্ত আনন্দের সঙ্গে জানাচ্ছি যে বিশিষ্ট লেখক ড. রমিত আজাদ এর একটি ইপস্তক আমরা প্রকাশ করেছি । ইপস্তকটির নাম ”বিষন্ন বিরিওজা (পর্ব ১, ২, ৩, ৪, ৫, ৬, ৭, ৮ ও ৯)” ।

ইপুস্তক(eBook)টি সরাসরি ডাউনলোড করুন আর উপভোগ করুন অসাধারণ গল্প ।

ডাউনলোড লিংকঃ http://allfreebd.com/dr-ramit-azad-ebooks/

ইজি পাবলিকেশনসে সকল ধরনের ইপুস্তক প্রকাশ ও ডাউনলোড করুন বিনামূল্যে ।

বিস্তারিতঃ

ইপুস্তক প্রকাশ সম্পর্কে জানতে ক্লিক করুন ।

পুস্তক প্রকাশ সম্পর্কে জানতে ক্লিক করুন ।

 

–ইজি পাবলিকেশনস্ প্রকাশক ।

Categories
অনলাইন প্রকাশনা ইপুস্তকসমূহ(eBooks) কবিতা সৃজনশীল প্রকাশনা

মানুষ হয়ে আরেক মানুষ কেমনে করে খুন

ভাবতে আমার অবাক লাগে, শোনরে বলি শোন,
মানুষ হয়ে আরেক মানুষ কেমনে করে খুন ।
দাবী করি মানুষ মোরা, কাজের বেলায় পশু,
পশুর চেয়েও অধম, হতে বাধেনা আর কিছু।
তোমার ওছিলায় যদি কেহ জীবন ফিরে পায়,
দ্বিমত বন্ধু করিও না, তাকে সহায়তায়।
মানুষ তুমি, তোমার উপর আর যে কেহ নাই,
তোমার দ্বারা কষ্ট পাবে, কেন তোমার ভাই।
ভাইয়ে ভাইয়ে ঝগড়া করে, আছে অনেক ভ্রষ্ট,
রক্তের বাধন ছিন্ন করে চালায় তারা অস্ত্র।
এ দুনিয়ায় আর কত দিন করবা বাহাদুরী,
কখন যেন ঘাটে তুমার ভিড়বে এসে তরী।
শেষ খেয়াতে পার হইতে, আছেনি ভাই ভাড়া ?
নইলে কিন্তু পারঘাটাতেই পরবে তুমি ধরা।
একবারও কি ভাবছ তুমি, দিয়া তোমার মন,
কোথা হতে আসলে তুমি, কোথায় প্রত্যর্পণ।
ভাবতে আমার অবাক লাগে, শোনরে বলি শোন,
মানুষ হয়ে আরেক মানুষ কেমনে করে খুন ।
আর কতকাল খেলবা তুমি ভবের পুতুল খেলা,
পশ্চিমে তাকিয়ে দেখ ডুবছে তোমার বেলা।
তাইতো বলি বন্ধু সকল, করোনা আর অহংকার,
এক দিন তোমার সকল কিছু হবেই চূরমার ।
সময় থাকতে হুঁশিয়ার, কর তোমার মন,
নইলে কিন্তু ছাড়বেনারে  প্রভু চিরন্তন।
ভাবতে আমার অবাক লাগে, শোনরে বলি শোন,
মানুষ হয়ে আরেক মানুষ কেমনে করে খুন।

মোহাম্মাদ সাহিদুল ইসলাম (সিঙ্গাপুর প্রবাসী )
মেইল_ Sahidul_77@yahoo.com
H/P_6584027281

Categories
ইপুস্তকসমূহ(eBooks) উপন্যাস কবিতা

মা গো তোমার সম্মান

মা গো তোমায় নিয়ে গাইব আমি গান।।
কত কবি তোমায় নিয়ে লিখছে কিবিতা,
তোমায় নিয়ে গান গেয়েছে কত গায়ক-গায়িকা,
আমি কীভাবে করিব মা গো তোমার সম্মান,
মা গো তোমায় নিয়ে গাইব আমি গান।।

গর্ভে থাকতেই মাগো তোমায় দিছি কত জ্বালা,
আমার কথা ভেবে মাগো জ্বালাকে করেছ মালা,
মাগো আমি কি আর দিতে পারব, মা গো……
ও… আমার মা, তোমার জ্বালার যোগ্য প্রতিদান,
মা গো তোমায় নিয়ে গাইব আমি গান।।

তোমায় মৃত্যু সম কষ্ট দিয়ে ত্রিভুবনে আসি,
সিন্ধু তুল্য ব্যথা ভুলে, মুখে তোমার হাসি,
মাগো তোর হাসিতে হাসে বিশ্ব, হাসে রহমান,
আমি কীভাবে করিব মা গো তোমার সম্মান,
মা গো তোমায় নিয়ে গাইব আমি গান।।

অসুখ হলে মাগো আমার শিথানেতে বসি,
তন্দ্রাহীন করেছ পার দিবসের পর নিশি,
আমার জন্যে বিধির তরে সঁপে দিছ প্রাণ,
এই ঋণ কি আর শোধ হবে মা গো……
ও….. আমার মা…., ও… আমার মা…
এ ঋণ কি আর শোধ হবে গো থাকতে আমার জান
আমি কীভাবে করিব মা গো তোমার সম্মান
মা গো…… ও….. আমার মা….,
ও…….. ও………. আমার মা……

মোহাম্মাদ সাহিদুল ইসলাম (সিঙ্গাপুর প্রবাসী )
মেইল_ Sahidul_77@yahoo.com

 

( এক দিন না এক দিন এ পৃথিবী ছেড়ে চলে যেতে হবে, তাই পৃথিবী যত দিন বহাল থাকবে ততদিন সকলের মুখে যেন মায়ের সম্মানে আমার এই গান চির অম্লান হয়ে থাকে।  গান দিয়ে মাকে সম্মান জানানো যায় না, তবে মনের আক্ষেপ প্রকাশ করা যায়। উল্লেখ্য গানটির আমি নিজে সুর করেছি এবং আমার ইউ টিউব একাউন্ট এ আপ-লোড করে এখানে লিঙ্কেজ দিয়ে দিব)
Categories
অনলাইন প্রকাশনা ইপুস্তকসমূহ(eBooks) কবিতা

ইসলামের প্রিয়জন

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না,

নবীর ওয়ারিশ আলেমগণ, ইসলামের প্রিয়জন,

তাদের মনে তোরা ভাইরে, কষ্ট দিস না,

হায়রে কষ্ট দিস না।

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না।।

 

কিছু আলেম এ সংসারে হয়েছে জালেম,

দুনিয়ার মোহে পড়িয়া হারায়েছে এলেম।

কিছু পথভ্রষ্টের গ্লানি তোরা সবাইকে দিস না,

ওরে সবাইকে দিস না।

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না।।

 

যুগে যুগে আলেম-আউলিয়া হয়েছে গত,

কত বীর-বাহাদুর তাদের কাছে মাথা করছে নত,

তাদের গায়ে ভাইরে তোরা, কলঙ্ক দিস না,

তোরা কলঙ্ক দিস না।

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না।।

 

বিশ্বে আজি আলেম-ওলামা দেখ শত শত,

ইসলামের জন্য জীবন তারা দিচ্ছে অবিরত।

তাদের নিয়ে কভু ভাইরে বিদ্রুপ করিস না,

ভাইরে বিদ্রুপ করিস না।

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না।।

 

হজরত ইসা (আঃ), বলে কুমবি ইজনিল্লাহ,

সহস্রাব্ধের গতকে যিনি করেছেন জিন্দা,

সেই নবীর ওয়ারিশানদের তোরা নিন্দা করিস না,

তোরা নিন্দা করিস না।

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না।।

 

যারা দ্বীন কায়েমে যুগে যুগে হয়েছে শহীদ,

যারা যুগ জিজ্ঞাসার জবাব দানে ফকিহে মুজতাহিদ,

তাদের উত্তরসূরি আলেম সমাজকে ঘৃণা করিস না,

তোরা ঘৃণা করিস না।

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না।।

 

সাড়ে নয়শ’ বছরের দুঃসহ জুলুম যিনি করেছেন গত,

আঃ গাফফার নবী, নুহ নামে যিনি হলেন বিভূষিত,

ইতিহাস হয়ে থাকলেন যিনি, আলেম-ওলামা তারই উপমা,

তোরা তাদেরকে ভাই, ত্রপা করিস না,

হায়রে ত্রপা করিস না।

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না।।

 

 

রানী বিলকিস যাহার কাছে মাথা করেছে নত,

যিনি ইঞ্জিনবিহীন সুপারসনিকে চলছে অবিরত,

সেই সুলায়মান(আ.) এর উত্তরসুরি, আলেম-ওলামা,

তাদের নিয়ে তোরা ভাইরে ব্যঙ্গ করিস না,

ভাইরে ব্যঙ্গ করিস না।

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না।।

 

সপ্ত আকাশ, আরশ কুরসী, মাকামে মাহমুদ ভেদ করি

কাবা কাউসাইন গেছেন যিনি, নূরজগত দিয়ে পাড়ি,

যিনি মদিনার তাজ, নূরে মুজাস্সাম,

তিনি রূহে কায়েনাত সাল্লাল্লাহু আলাইহিওয়া সাল্লাম,

তার যোগ্য ওয়ারিশ, আমাদের আলেম-ওলামা,

আমার নবীর ওয়ারিশানদের কেউ কলঙ্ক দিস না,

তোরা কলঙ্ক দিস না।

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না।।

 

তাইতো বলি শোন, ওলীর সাথে থাক যদি এক মুহূর্ত,

পর্বত-সম মন তোমার হবে মমের মত,

সেই ওলি-আউলিয়া, আলেম-ওলামাদের হেনস্থা করিস না,

তোরা হেনস্থা করিস না।

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না।।

 

মোহাম্মদ সহিদুল ইসলাম
Sahidul_77@yahoo.com

 

 

 

Categories
ইপুস্তকসমূহ(eBooks) কবিতা

বিচারের দিন খাইবি ধরা

তোরা যারে-তারে নির্বিচারে নাস্তিক বলিস ক্যান,

তোদের কোরআন-সুন্নায় আছে কিরে জ্ঞান!

 

হও যত বড় রাজনীতিবিদ,

হও না কেন মন্ত্রী-মিনিস্টার,

তাই বলে কি আছে অধিকার,

কোন বিষয়ে ফতোয়া দেবার।

 

ফতোয়া দিবে কারা, শরীয়ায় জ্ঞান রাখেন যারা।

মজলিশে শুরা গঠন করে, ন্যায় কাজী নিয়োগ করে,

দোষীর দোষ প্রমাণ করে, করতে হবে দণ্ডদান,

এটাই ইসলামের বিধান।

তোরা যারে-তারে নির্বিচারে নাস্তিক বলিস ক্যান,

তোদের কোরআন-সুন্নায় আছে কিরে জ্ঞান!

 

ওরে জেনে রাখিস তোরা, কথা বললে মনগড়া,

বিচারের দিন খাইবি ধরা, নাইরে পরিত্রাণ,

ওরে নাইরে পরিত্রাণ,

তোরা যারে-তারে নির্বিচারে নাস্তিক বলিস ক্যান,

তোদের কোরআন-সুন্নায় আছে কিরে জ্ঞান!

 

শরীয়া আইনে কি বলে, কাউকে নাস্তিক বলতে হলে,

কোরান সুন্নাহ অস্বীকারের লাগবে উপযুক্ত প্রমাণ,

লাগবে উপযুক্ত প্রমাণ।

তোরা যারে-তারে নির্বিচারে নাস্তিক বলিস ক্যান,

তোদের কোরআন-সুন্নায় আছে কিরে জ্ঞান!

 

হাদিসে কি আছে শোন, অপবাদ নাহি দিয়ো যেন,

নির্বিচারে নাস্তিক বলে, যদি না করতে পার প্রমাণ,

জেনে রেখ, নাস্তিক হিসেবে তুমি একদিন হবে দণ্ডায়মান,

তুমি হবে দণ্ডায়মান।

তোরা যারে-তারে নির্বিচারে নাস্তিক বলিস ক্যান,

তোদের কোরআন-সুন্নায় আছে কিরে জ্ঞান!

 

মোহাম্মদ সহিদুল ইসলাম
Sahidul_77@yahoo.com

Categories
ইপুস্তকসমূহ(eBooks) কবিতা ধর্ম ও আধ্যাত্মিকতা

কোরানের প্রহরা

ওরে ও বেকুবের দল,
তোদের কি আছে হায়রে নুন্যতম জ্ঞান,
সর্বকালের শ্রেষ্ঠ বানী, কোরান পুড়লি ক্যান।

ওরে ও বেহুঁশের দল,
তোদের কি আর আছে হায়রে নুন্যতম হুঁশ
কেঊ যদিও অন্যায় করে, কোরানের কি দোষ।

ওরে ও গবেটের দল,
দাড়ি রেখে টুপি পড়লেই হয় কি  মুসলমান!
মুসলিম হলে তোরা কি আর পুড়াইতি কোরান?

ওরে ও গাড়লের দল,
তোদের কি আর এ জীবনে জ্ঞান হবে না!
বিধর্মীরা কোরান বুঝে তোরা বুঝলি না।

ওরে ও নির্বোধের দল,
জেনে রাখিস তোরা, এটা নয় তো সহজ পুড়া,
লক্ষ-কোটি হাফেজের মনে আছে এটি ভরা।

ওরে ও গর্দভের দল,
বাহাদুরি আর ছলচাতুরী যতই করিস তোরা,
আল্লাহ্‌, স্বয়ং নিজে করবে কোরানের প্রহরা।

(গত ০৫/০৫/২০১৩ তারিখে হেফাজতে ইসলামের ডাকা সমাবেশে ইসলামের শত্রুরা কোরান শরীফ সহ বইয়ের দোকান পুড়িয়ে দেয়_ তারা যেই দলেরই হোক না কেন, তার প্রতিবাদে এবং অপরাধীদের এবং কোরান অবমাননা কারীদের শাস্তির দাবিতে আমার এ কবিতা।)

মোহাম্মদ সহিদুল ইসলাম
Sahidul_77@yahoo.com