Categories
অনলাইন প্রকাশনা ইজি পাবলিকেশনস কবিতা

কবিতা::::::: তোকে মনে পড়ে

খুব বেশি তোকে মনে পড়ে
আজ তুই কাছে নেই বলেে
এমন চিনচিন ব্যাথা লাগেনি আগে
তুই ছিলি যখন আমারই মাঝে।

ভাবিনি কখনো এমন করে
এত ভালবেসেও চলে যাবি
আমাকে ছেড়ে অনেক দুরে।

খুব বেশি তোকে মনে পড়ে
আজ নিজেকে ভীষণ একা লাগে
ফিরে যেতে ইচ্ছে করে
ফেলে আসা সেই সোনালী বিকেলে।

অনন্তকাল থাকবো না কেউ
থেকে যাবে দু’জনের মধুর স্মৃতিগুলো
যদিও আছো চোখের অন্তরালে
ভালবাসি এখনো তোকে আগের মতো করে।

Categories
কবিতা

কবিতা::::::: নীলাচল

অনেক উপরে আমি, বান্দরবনের
সুউচ্চ নীলাচল টিলায়
নিচে বহমান নদীর মতো
আকাঁবাকা হয়ে নেমে গেছে
সরু র্কাপেটের উচু-নিচু রাস্তা।

শহরের বুকে বড় বড় ইমারত
কিংবা খুঁড়ে ঘরগুলোকে মনে হচ্ছে
তরে তরে সাজানো ঠিক বাচ্চাদের খেলাঘর
সৃষ্টি সেরা মানুষগুলোকে উপর থেকে
দেখায় তখন পিঁপড়ার মতো।

যতদুর চোখ যায়, বিস্থীর্ণ প্রান্তর
জুড়ে সবুজের মিলন মেলা
বাতাশের শীতল ঝাপটা আর মেঘের
আলো-ছায়ার মুগ্ধতায় হৃদয়ের
বদ্ধ বাতায়ন খোলে যায়।

Categories
অনলাইন প্রকাশনা কবিতা

কৃষক তুমি সৈনিক

শাকিল আহমেদ

 

সবুজ মাঠের ধানের খেতে বর্ষা দিল জল

রোদের আলো উঁকি মেরে করছে টলমল ,

তাইনা দেখে কৃষক সবাই করছে মাঠে চাষ

যতই আসুক ঝড় বাদল আর জীবন করুক নাশ।

ঝর এলো , বৃষ্টি এলো ছাড়লো না কেও হাল,

সকল দুঃখের পরে ভেবে উড়বে সুখের পাল।

তবু কৃষক স্বপ্ন দেখো মনে জাগায়ে আশা

গোলা ভরবে, উঠোন ভরবে, সোনালী ফসলে ঠাসা।

রোদে পুড়ে, বৃষ্টি ভিজে ফলাও তুমি ধান

তবু জাতি দিবে কি আজ তোমাদের সম্মান­?

 

 

Categories
অনলাইন প্রকাশনা কবিতা

আকুতি

–মারুফ সরদার

ভালবাসা মানে ভাসমান কিছু অনুভূতি

অথবা খুব একলা লাগা রাত্রিবেলা

তোমার হাতটি ধরার মিছেই আকুতি

নয়তো তোমার চোখে চেয়ে থাকা আমার অদৃশ্য দৃষ্টি

যা কিনা বার্থ ছিল সিক্ত করতে

শুকনো মনের উঠোন খানা ঝরিয়ে অঝোর বৃষ্টি

কেউ বলে ভালবাসা নাকি সীমাহীন স্রোত নিয়ে

ছুটে চলা কোন ভাঙ্গা বাঁধ

তুমি কি ভাব আমার জানতে ইচ্ছা করে

এ আমার সুপ্ত মনের গুপ্ত সাধ…

আজও মেঘ এসেছিল বৃষ্টির হাত ধরে

ওরা বলে ভালবাসা নাকি কারো অপেক্ষায় থাকা

তেষ্টা মেটানো এক ফোঁটা অনুভূতি

তবে খুব একলা লাগা একান্ত ক্ষণে; মন বলে

ভালবাসা মানে তোমার চোখে চেয়ে মরণ পাওয়ার আকুতি

Categories
অনলাইন প্রকাশনা কবিতা সৃজনশীল প্রকাশনা

সমাধিতে দিসনা কভু ফুল

 

মোদের জন্য সারা জীবন,

করেছেন যিনি সন্ধি,

দিবস নামের খাঁচাতে ভাই,

করিস না তারে বন্দী।

 

দেখেছি আমি সিঙ্গাপুরে,

বিভিন্ন দিবসে হায়,

ছেলে-মেয়েরা ফুল নিয়ে,

বাবা-মার সমাধিতে যায়

 

সিঙ্গাপুরীদের আছে ভাবনা,

আছে সরকারী নিয়ম-নীতি,

কেউ কর্মক্ষমতা হারালে পরে,

বৃদ্ধাশ্রম তাদের পরিণতি।

 

থাকতে বাবা-মা পাওনি সময়,

দেখতে তাদের মুখ।

সমাধিতে ফুল দিলে কি!

পাবে তারা সুখ।

 

থাকতে বাবা করতে সেবা,

করিস যদি ভুল,

যাসনে তোরা, সমাধিতে

দিসনা কভু ফুল।

 

তাইতো বলি থাকতে সময়,

কর বাবার সেবা,

মনে রেখ তুমিও একদিন,

হবে কারো বাবা।

 

মোহাম্মদ সহিদুল ইসলাম (সিঙ্গাপুর প্রবাসী)

মেইল_ Sahidul_77@yahoo.com

Categories
অনলাইন প্রকাশনা ইপুস্তকসমূহ(eBooks) কবিতা

ইসলামের প্রিয়জন

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না,

নবীর ওয়ারিশ আলেমগণ, ইসলামের প্রিয়জন,

তাদের মনে তোরা ভাইরে, কষ্ট দিস না,

হায়রে কষ্ট দিস না।

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না।।

 

কিছু আলেম এ সংসারে হয়েছে জালেম,

দুনিয়ার মোহে পড়িয়া হারায়েছে এলেম।

কিছু পথভ্রষ্টের গ্লানি তোরা সবাইকে দিস না,

ওরে সবাইকে দিস না।

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না।।

 

যুগে যুগে আলেম-আউলিয়া হয়েছে গত,

কত বীর-বাহাদুর তাদের কাছে মাথা করছে নত,

তাদের গায়ে ভাইরে তোরা, কলঙ্ক দিস না,

তোরা কলঙ্ক দিস না।

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না।।

 

বিশ্বে আজি আলেম-ওলামা দেখ শত শত,

ইসলামের জন্য জীবন তারা দিচ্ছে অবিরত।

তাদের নিয়ে কভু ভাইরে বিদ্রুপ করিস না,

ভাইরে বিদ্রুপ করিস না।

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না।।

 

হজরত ইসা (আঃ), বলে কুমবি ইজনিল্লাহ,

সহস্রাব্ধের গতকে যিনি করেছেন জিন্দা,

সেই নবীর ওয়ারিশানদের তোরা নিন্দা করিস না,

তোরা নিন্দা করিস না।

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না।।

 

যারা দ্বীন কায়েমে যুগে যুগে হয়েছে শহীদ,

যারা যুগ জিজ্ঞাসার জবাব দানে ফকিহে মুজতাহিদ,

তাদের উত্তরসূরি আলেম সমাজকে ঘৃণা করিস না,

তোরা ঘৃণা করিস না।

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না।।

 

সাড়ে নয়শ’ বছরের দুঃসহ জুলুম যিনি করেছেন গত,

আঃ গাফফার নবী, নুহ নামে যিনি হলেন বিভূষিত,

ইতিহাস হয়ে থাকলেন যিনি, আলেম-ওলামা তারই উপমা,

তোরা তাদেরকে ভাই, ত্রপা করিস না,

হায়রে ত্রপা করিস না।

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না।।

 

 

রানী বিলকিস যাহার কাছে মাথা করেছে নত,

যিনি ইঞ্জিনবিহীন সুপারসনিকে চলছে অবিরত,

সেই সুলায়মান(আ.) এর উত্তরসুরি, আলেম-ওলামা,

তাদের নিয়ে তোরা ভাইরে ব্যঙ্গ করিস না,

ভাইরে ব্যঙ্গ করিস না।

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না।।

 

সপ্ত আকাশ, আরশ কুরসী, মাকামে মাহমুদ ভেদ করি

কাবা কাউসাইন গেছেন যিনি, নূরজগত দিয়ে পাড়ি,

যিনি মদিনার তাজ, নূরে মুজাস্সাম,

তিনি রূহে কায়েনাত সাল্লাল্লাহু আলাইহিওয়া সাল্লাম,

তার যোগ্য ওয়ারিশ, আমাদের আলেম-ওলামা,

আমার নবীর ওয়ারিশানদের কেউ কলঙ্ক দিস না,

তোরা কলঙ্ক দিস না।

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না।।

 

তাইতো বলি শোন, ওলীর সাথে থাক যদি এক মুহূর্ত,

পর্বত-সম মন তোমার হবে মমের মত,

সেই ওলি-আউলিয়া, আলেম-ওলামাদের হেনস্থা করিস না,

তোরা হেনস্থা করিস না।

তোরা আলেমদের কে জালেম বলিস না।।

 

মোহাম্মদ সহিদুল ইসলাম
Sahidul_77@yahoo.com